1. aponi955@gmail.com : Apon Islam : Apon Islam
  2. mdarifpress@gmail.com : Nure Alam Siddky Arif : Nure Alam Siddky Arif
  3. hasanchy52@gmail.com : hasanchy :
  4. sandhanitv@gmail.com : Kamrul Hasan : Kamrul Hasan
  5. glorius01716@gmail.com : Md Mizanur Rahman : Md Mizanur Rahman
  6. mrshasanchy@gmail.com : Riha Chy : Riha Chy
বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:৩৮ অপরাহ্ন

সাভারে লবণ গুজবে ১৭ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

  • প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৯
  • ১৩৩ বার দেখা হয়েছে

লবণের কেজি কমপক্ষে দু’শ’ টাকা হবে এমন গুজবে গতকাল মঙ্গলবার দুপুর থেকে সাভারের বিভিন্ন এলাকায় লবণ কেনার হিড়িক পড়েছে। বাসা বাড়ীর শত শত নারী পুরুষ একযোগে সাভার বাসস্ট্যান্ড, নামা বাজার, বিভিন্ন হাট-বাজার এবং পাড়া-মহল্লার দোকানগুলোতে ভীড় জমায়। এসময় বিভিন্ন পাইকারী ও খুচরা দোকানে ক্রেতাদেরকে লাইন দিয়ে ৫-১০ কেজি পর্যন্ত লবন কিনতে দেখা গেছে। এই সুযোগে অসাধু ব্যবসায়ীরাও ক্রেতাদের কাছে চড়া দামে লবন বিক্রী করে।

দাম বৃদ্ধির ঘটনায় কিছু কিছু এলাকায় ব্যবসায়ীদের সাথে সাধারণ ক্রেতাদের হাতাহাতির ঘটনাও ঘটেছে। অধিক মুনাফাখোর ব্যবসায়ীরা প্রতি কেজি ৩০টাকা দরের লবন এলাকা ভেদে ৪০ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ১২০ টাকা পর্যন্ত বিক্রয়ের অভিযোগ রয়েছে। দুরবর্ত্তী গ্রাম এলাকায় সবচে বেশী নৈরাজ্য হয়েছে। তবে ভ্রাম্যমান আদালত ও পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দিতে জোরালো ভূমিকা নেয়ায় রাতে পরিস্থিতি শান্ত হয়। এ সময় বাড়তি দামে লবন বিক্রির দায়ে ১৭ জনকে আটক ও জেল জরিমানায় দন্ডিত করা হয়।

সাভার উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) পারভেজুর রহমান ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহফুজ আহম্মেদ দাম নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য মঙ্গলবার দুপুরের পর ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে মাঠে নামেন। এসময় সাভার বাসস্ট্যান্ড, নামা বাজার, গেন্ডা, উলাইল, হেমায়েতপুর, আমিনবাজার এলাকায় বাড়তি দামে লবন বিক্রির দায়ে ১৩ জনকে আটক করা হয়। পরে তাদেরকে বিভিন্ন মেয়াদে কাড়াদন্ড ও আর্থিক জরিমানা করা হয়।

এছাড়া সাভার থানার হেমায়েতপুর লবন বেশী দামে বিক্রির অপরাধে ৪ জনের সাজা, জরিমানা আদায় করা হয়েছে। তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন এলাকায় লবনের দাম বেশি রাখায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার ভূমি, আমিনবাজার সার্কেল জুবায়ের আহমেদের নেতৃত্বে ও তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফখরুল আলম সমরের সহযোগিতায় জয়নাবাড়িতে একজনকে দু’ দিনের জেল, শ্যামপুর এলাকায় একজনকে ১৫ দিনের ও একজনকে ২ মাসের জেল, হরিণধরা এলাকায় একজনকে ৬ মাসের জেল ও ঝাউচর এলাকায় একজনকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

পাথালিয়া ইউনিয়নের ইসলামনগর ও পানধোয়া বাজারের মুদি ব্যবসায়িরা ২৫/৩০ টাকা কেজি দরের লবন ৫০/৬০ টাকায় বিক্রয় করলে স্থানীয় বাসিন্দার একজোট হয়ে প্রতিবাদ করে প্রকৃত দামে বিক্রয় করতে বাধ্য করে। এসময় দোকানি পক্ষ ও স্থানীয়দের মাঝে ঝগড়া ও বাদানুবাদ হয়। তবে দোকানগুলিতে শত শত লোক ভীড় জমায়।

এদিকে সাভারে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাজার মনিটরিংয়ের জন্য পৃথক চারটি টিম কাজ শুরু করেছে। মঙ্গলবার বিকেলে আশুলিয়া এলাকায় সহকারী কমিশনার ভূমি (আশুলিয়া রাজস্ব সার্কেল) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাজওয়ার আকরাম সাকাপি ইবনে সাজ্জাদের নেতৃত্বে বাইপাইলে অভিযান পরিচালনা করা হয়। তিনি জানান, অভিযানের সময় শরিফ স্টোর, সবুজ বাণিজ্যালয় ও ভাই ভাই স্টোর নামে তিনটি দোকানকে মোট ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পাশাপাশি বেশি দামে কেউ লবন বিক্রি করলে বা দাম চাইলে ক্রেতাদেরকে সংশ্লিষ্ট থানা ও হট লাইন নম্বরে জানানোর পরামর্শ দেন তিনি।

এছাড়া সাভার নামাবাজার এলাকায় অতিরিক্ত মূল্যে লবণ ব্রিক্রি না করতে ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে মাইকিং করেন সাভার মডেল থানা পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) জাকারিয়া হোসেন। রাতে এ রিপোর্ট লেখার সময় পর্যন্ত পরিস্থিতি কিছুটা স্থিতিশীল ছিল। তার পরও মানুষ কম বেশী দোকান থেকে লবন কিনছিলেন।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের অন্যান্য খবর
© All rights reserved © Sandhani TV
Theme Design by Hasan Chowdhury