1. aponi955@gmail.com : Apon Islam : Apon Islam
  2. mdarifpress@gmail.com : Nure Alam Siddky Arif : Nure Alam Siddky Arif
  3. hasanchy52@gmail.com : hasanchy :
  4. sandhanitv@gmail.com : Kamrul Hasan : Kamrul Hasan
  5. glorius01716@gmail.com : Md Mizanur Rahman : Md Mizanur Rahman
  6. mrshasanchy@gmail.com : Riha Chy : Riha Chy
শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০২:২০ পূর্বাহ্ন

একবারে এক কেজি পেঁয়াজ কেনে অনেক কম মানুষ

  • প্রকাশ: শুক্রবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৯
  • ১৫২ বার দেখা হয়েছে

দেশে গত কয়েক মাস ধরে চলছে পেঁয়াজের সংকট। এ সংকট কাটাতে জরুরি ভিত্তিতে পেঁয়াজ আমদানি করেছে সরকার। তবে এখনো পেঁয়াজের দাম ক্রেতাদের নাগালের বাইরে। ভোলার দৌলতখানে পেঁয়াজের দাম এতটাই যে, একসঙ্গে এক কেজি পেঁয়াজ কেনার মতো ক্রেতা খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

আজ শুক্রবার দৌলতখানের বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, গত সপ্তাহে পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমলেও এ সপ্তাহে ফের বেড়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার প্রতি কেজি পেঁয়াজে দাম বেড়েছে ২০ থেকে ৩০ টাকা।

দৌলতখানের বিভিন্ন বাজারে দেখা যায়, প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২০০ থেকে ২৩০ টাকা দরে।

দৌলতখান বাজারে পেঁয়াজ কিনতে আসা আলাউদ্দিন, বাবলু, সাগর দৈনিক আমাদের সময়কে জানান, আগে অনেকেই একসঙ্গে ৫ কেজি পেঁয়াজও কিনতেন কিন্তু দাম বাড়ার পর এক কেজি পেঁয়াজও কিনতে পারছেন না। পেঁয়াজের দাম বাড়ায় এখন আধা কেজি পেঁয়াজ কিনতে হচ্ছে ১১৫ টাকায়। উপজেলা প্রশাসনের মনিটরিংয়ের অভাবে আমরা এমন ভোগান্তির শিকার হচ্ছি।

বাজারটির পেঁয়াজ ব্যবসায়ী সুজন জানান, পেয়াজের মূল্য বৃদ্ধিতে আজ কয়েকদিন ধরে আধা কেজি করে পেঁয়াজ বিক্রি হয়। এক কেজি পেঁয়াজ বিক্রির কাস্টমার খুব কম। এতে আমাদের পেঁয়াজ কোনো কোনো দিন পচে যায়।

দৌলতখান বাজারের কয়েকটি পেঁয়াজের বড় আড়ত ঘুরে দেখা যায়, কোনো দোকানে ২০ কেজি পেঁয়াজ আছে, আবার কোনো দোকানে ১০ কেজি পেঁয়াজ রয়েছে।

আবার ছোট ছোট কয়েকটি পেঁয়াজের দোকান ঘুরে দেখা যায়, তাদের দোকেনেও চার থেকে থেকে পাঁচ কেজি পেঁয়াজ রয়েছে।

পেঁয়াজ বিক্রেতারা কেন কম করে পেঁয়াজ রাখছেন এ বিষয়ে অন্য ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, পেঁয়াজ বিক্রেতারা বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রির জন্য গোডাউনে মজুদ করে রেখেছেন। সেখান থেকে অল্প অল্প করে দোকানে সাজিয়ে বিক্রি করেন, এতে তাদের ব্যবসাও ভালো হয়।

এমন অভিযোগের বিষয় জানতে চাইলে দৌলতখান বাজারের কোনো ব্যবসায়ী স্বীকার করেননি। তারা জানান, বেশি দামেই তারা পেঁয়াজ কিনেন বলে বেশি দামে বিক্রি করছেন।

এ বিষয়ে দৌলতখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলার রহমান দৈনিক আমাদের সময়কে বলেন, ‘পেঁয়াজ মজুদ করে বেশি দামে বিক্রির অভিযোগে ব্যবসায়ীদের থানায় ডেকে এনে সচেতন করা হয়েছে। তারপরও যদি পেঁয়াজের বাজারে সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত থাকার খবর পাওয়া যায় তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বর্তমানে দৌলতখানে পেঁয়াজের বাজারে প্রশাসনের নজরদারি রয়েছে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের অন্যান্য খবর
© All rights reserved © Sandhani TV
Theme Design by Hasan Chowdhury