1. aponi955@gmail.com : Apon Islam : Apon Islam
  2. mdarifpress@gmail.com : Nure Alam Siddky Arif : Nure Alam Siddky Arif
  3. hasanchy52@gmail.com : hasanchy :
  4. sandhanitv@gmail.com : Kamrul Hasan : Kamrul Hasan
  5. glorius01716@gmail.com : Md Mizanur Rahman : Md Mizanur Rahman
  6. mrshasanchy@gmail.com : Riha Chy : Riha Chy
বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:১৯ পূর্বাহ্ন

উইলিয়ানের জোড়া গোলে মরিনহোকে হারাল চেলসি

  • প্রকাশ: সোমবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ১৩৯ বার দেখা হয়েছে

টটেনহ্যাম হটস্পার এখন হোসে মরিনহোর। মাওরিসিও পোচেত্তিনোকে সরিয়ে দিয়ে মরিনহোকে দায়িত্বে নিয়ে আসার অর্থ, এ ক্লাবটিকে একটা ভালো পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া। কিন্তু পুরনো ক্লাব চেরসির মুখোমুখি হয়ে আর নিজের ক্যারিশমা দেখাতে পারলেন না টটেনহ্যাম কোচ। হারতে হলো ২-০ ব্যবধানে। তাও আবার ঘরের মাঠে। চেলসির এই জয়ে অবশ্য একক অবদান বলা যায় ব্রাজিলিয়ান অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার উইলিয়ানের। জোড়া গোল করেই তিনি হারিয়ে দিয়েছেন টটেনহ্যাম এবং তার সাবেক কোচ মরিনহোকে। ম

্যাচের মাঝেই বর্ণবাদের কালোছায়া পড়েছিল গ্যালারিতে। যে কারণে, দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই মাইকে ঘোষণা দেয়া হয়, গ্যালারিতে কিছু বর্ণবাদী আচরণ হচ্ছে এবং খেলায় সমস্যা তৈরি করছে। এ দিয়ে বর্ণবাদ নিরসনে ফিফার নতুন পদক্ষেপের বাস্তবায়নই করা হলো চেলসি-টটেনহ্যাম ম্যাচে। এরপর আরও দুইবার একই ধরনের ঘোষণা দেয়া হয়। লিগের শুরু থেকেই চেলসির প্রায় জয়ের নেপথ্যের নায়ক হিসাবে ভূমিকা রাখছিলেন উইলিয়ান। এবারও সেই ভূমিকায় আসলেন তিনি। সামনে থেকে লড়াই করে চেলসিকে জয় এনে দিনেল তিনি। টটেনহ্যামের বিরুদ্ধে হাই-ভোল্টেজ লড়াইয়ে চেলসি সমর্থকদের কাছে ক্রিসমাসের সান্তাক্লজ হয়েই দেখা দিলেন তিনি।

লন্ডন ডার্বি হিসাবে পরিচিত হলেও প্রিমিয়র লিগের এই ম্যাচটি দুই ম্যানেজারের পারস্পরিক লড়াই হিসাবেও চিহ্নিত হচ্ছিল। চেলসির কোচ সাবেক ফুটবলার ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ড। হোসে মোরিনহোর কোচিংয়েই দীর্ঘ একটা সময় চেলসির জার্সিতে মাঠে খেলতে নেমেছিলেন ল্যাম্পার্ড। সেদিক থেকে নিজের সাবেক কোচকেই টেক্কা দিলেন দ্য ব্লুজের ঘরের ছেলে ল্যাম্পার্ড। ঘরের মাঠে ম্যাচের প্রথমার্ধেই জোড়া গোলে পিছিয়ে পড়ে টটেনহ্যাম৷ দ্বিতীয়ার্ধে মরিয়া প্রচেষ্টা চালিয়েও ম্যাচে ফেরা সম্ভব হয়নি তাদের পক্ষে। ম্যাচের ১২ মিনিটের মাথায় উইলিয়ান প্রথমবার টটেনহ্যামের জালে বল জড়ান।

কর্ণার থেকে কোভাচিচের সঙ্গে পারস্পরিক বল বিনিময় করে বক্সে ঢোকেন উইনিয়ান এবং গড়ানো শটে দ্বিতীয় পোস্টের একেবারে কোণ দিয়ে বল জালে ঠেলে দেন তিনি। ২৮ ও ২৯ মিনিটে পরপর দু’বার গোল করার সুবর্ণ সুযোগ তৈরি করে টটেনহ্যাম। তবে চেলসি গোলরক্ষক কেপাকে পরাস্ত করা সম্ভব হয়নি তাদের পক্ষে। উলটে প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে চেলসিকে পেনাল্টি উপহার দিয়ে বসেন টটেনহ্যাম গোলরক্ষক গাজানিগা। রেফারি ভিএআরের সাহায্য নিয়ে স্পট কিকের নির্দেশ দেন এক্ষেত্রে। ৪৫+৪ মিনিটে পেনাল্টি থেকে ম্যাচে নিজের ও চেলসির হয়ে দ্বিতীয় গোল উইলিয়ানের। এই জয়ের সুবাদে ১৮ ম্যাচে ৩২ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের চতুর্থ স্থান আরও কিছু দিনের জন্য নিরাপদ করল চেলসি। টটেনহ্যাম নেমে গেল পাঁচ থেকে সাত নম্বরে।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের অন্যান্য খবর
© All rights reserved © Sandhani TV
Theme Design by Hasan Chowdhury