1. aponi955@gmail.com : Apon Islam : Apon Islam
  2. mdarifpress@gmail.com : Nure Alam Siddky Arif : Nure Alam Siddky Arif
  3. hasanchy52@gmail.com : hasanchy :
  4. sandhanitv@gmail.com : Kamrul Hasan : Kamrul Hasan
  5. glorius01716@gmail.com : Md Mizanur Rahman : Md Mizanur Rahman
  6. mrshasanchy@gmail.com : Riha Chy : Riha Chy
সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০১:৫৩ অপরাহ্ন

নতুনদের জন্য জায়গা করে দেওয়া উচিত: কেয়া

  • প্রকাশ: সোমবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৩১১ বার দেখা হয়েছে

বছর কয়েক আগেও চলচ্চিত্র পাড়া ছিল বেশ রমরমা। কিন্তু হঠাৎ করেই একে একে নায়িকারা হারিয়ে গিয়েছেন নানা স্রোতে। তারমধ্যে কয়েকজনক ফিরলেও ফিরেন নি অনেকেই। নতুন করে আবারও সিনেমায় ফিরেছেন এক সময়ের চলচ্চিত্রের খুব পরিচিত মুখ চিত্রনায়িকা কেয়া।

প্রায় এক ডজন চলচ্চিত্রে অভিনয় করে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন তিনি। তবে সময়ের স্রোতে নানা কারণে নিজেকে আড়ালে নিয়ে যান এই নায়িকা। সর্বশেষ ২০১৫ সালে তাকে দেখা গিয়েছিলো সাইমন সাদিকের বিপরীতে ‘ব্ল্যাকমানি’ সিনেমায়। এরপর আর দেখা যায় নি তাকে। চার বছরের বিরতি কাটিয়ে ‘ইয়েস ম্যাডাম চলচ্চিত্রের মাধ্যমে কেয়া আবারও ফিরেছেন লাইট ক্যামেরার অ্যাকশনে। সেখানে তার সঙ্গে আলাপ হয় সমসাময়িক বিষয় নিয়ে।

একটা সময় চলচ্চিত্রে আলো ছড়িয়েছেন। এরপর আবার হারিয়ে গেলেন, দেখা যায় নি কোন সিনেমাতে। এর কারণ কি এমন প্রশ্নে কেয়া জানান, আসলে এতো দিনের গ্যাপের কারণটা বলতে তেমন ইচ্ছে করেনা। তবে সবাই এই বিরতির কারণটাই জানতে চাচ্ছেন। মূলত পরিবারিক কারণেই এই বিরতি। আমার মা অসুস্থ ছিলেন। তাকে সময় দিতে হয়েছে। এছাড়া ছবিতে যে অভিনয় করবো তেমন ভালো ছবির প্রস্তাবও পাইনি। যেগুলোর প্রস্তাব পেয়েছি সেগুলোতে অভিনয় করার মতো ছিলো না বলেই করা হয়নি।

যারাই সিনেমা থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন তারাই একটা কথা বলছেন যে, পছন্দের গল্প বা চরিত্র পাই নি যেটা দিয়ে আবারও নিজেকে ক্যামেরার সামনে নিয়ে আসবো। আপনার ক্ষেত্রেও কি একই বিষয়ের আক্ষেপ? কেয়া বলেন, সময়ের সাথে সাথে অনেক কিছুই পরিবর্তন হয়। সেই পরিবর্তনের সাথে খাপ খাইয়েই কাজ করতে হবে। আগে যেমন চরিত্রে কাজ করেছি বা যেভাবে হাজির হয়েছি এখনও যদি সবাই সেভাবেই চাই তাহলে আর ফিরেই লাভ কি যদি নতুনত্ব না থাকে!

ইয়েস ম্যাডাম ছবির শুটিংয়ের ফাঁকে চিত্রনায়িকা কেয়া

আর এখন সিনেমার বাজার নেই, এটা কিন্তু আমাদের দোষেই। কারণ আমরা দর্শকদের জন্য ভালো হল তৈরি করতে পারিনি। দর্শকরা যেমন হল চায় আমরা তেমন হল দিতে পারছিনা। আমরা যখন সিনেমায় শুটিং শুরু করি তখন অনেক হল ছিলো। এখন তার অর্ধেকও নেই। হল কমে একেবারে নাই হয়ে যাওয়ার মতো অবস্থা। আমরা ভালো হল দেই, ভালো সিনেমা দেই দেখবেন সিনেমার বাজার ঠিকই ভালো হয়ে যাবে।

দীর্ঘ বিশ বছর ধরে ঢাকাই সিনেমাতে রাজত্ব করছেন শাকিব খান। তার সঙ্গে বেশ কিছু ছবিতেও দেখা গিয়েছে আপনাকে। এখনও কি তার সঙ্গে নতুন করে জুটি হয়ে কাজ করতে চান? কেয়ার সহজ উত্তর, শাকিবের সঙ্গে অনেক ছবিই করেছি। একটা সময় আমি আর শাকিব সেরা জুটি হয়েছিলাম। দেশের একটি গণমাধ্যমের জরিপে এটা উঠে এসেছিল। সুযোগ পেলে আবারও শাকিবের সঙ্গে কাজ করবো। এখানে একটা বিষয় বলতে চাই। সেটা হচ্ছে,র শাকিব খানের ছবিগুলোর বাজেট বেশি থাকে। আয়োজনও বেশি থাকে। তবে তার ছবির মতো অন্য নায়ক-নায়িকাদের ছবির বাজেট ও আয়োজন বেশি থাকলে তারাও ভালো করতে পারবে।

শাকিব খানের ছবিতে যেমন বাজেট থাকে অন্যদের ছবির বেলায় কিন্তু সে বাজেট থাকেনা। এখন যারা কাজ করছেন এবং নতুন নায়ক নায়িকা যারা আসছেন তারা যদি শাকিব খানের মতো বড় বাজেটের ছবি পেতেন তাহলে তারাও ভালো কিছু করতে পারতেন। আমি মনে করি তাদের জন্যও জায়গা করে দেয়া উচিত।

মাত্র ১৪ বছর বয়সে নজরকাড়া গ্ল্যামার নিয়ে ঢাকাই চলচ্চিত্রে এসেছিলেন চিত্রনায়িকা কেয়া। মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘কঠিন বাস্তব’ ছবি দিয়ে শুরুতেই দারুণ প্রশংসিত হন। ওই ছবিতে তার বিপরীতে ছিলেন রিয়াজ ও আমিন খান। ২০০৩ সালে তিনি ‘সাহসী মানুষ চাই’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন, যা দুইটি বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করে। ২০১৫ সালে তার অভিনীত সর্বশেষ চলচ্চিত্র ব্ল্যাকমানি মুক্তি পায়।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের অন্যান্য খবর
© All rights reserved © Sandhani TV
Theme Design by Hasan Chowdhury