1. aponi955@gmail.com : Apon Islam : Apon Islam
  2. mdarifpress@gmail.com : Nure Alam Siddky Arif : Nure Alam Siddky Arif
  3. hasanchy52@gmail.com : hasanchy :
  4. sandhanitv@gmail.com : Kamrul Hasan : Kamrul Hasan
  5. glorius01716@gmail.com : Md Mizanur Rahman : Md Mizanur Rahman
  6. mrshasanchy@gmail.com : Riha Chy : Riha Chy
রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:৫১ অপরাহ্ন

নড়াইলে আ.লীগ-বিএনপি সংঘর্ষে আহত ১০

  • প্রকাশ: সোমবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ১৩৭ বার দেখা হয়েছে

নড়াইলে আবারও স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে। এতে অশান্ত হয়ে পড়েছে কালিয়া উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রাম।

সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের আওয়ামী লীগ সমর্থিত গ্রুপের দলপতি বাবু মোল্যা নড়াইল সদর উপজেলার সীমান্তবর্তী সিঙ্গাশোলপুর বাজারে গেলে প্রতিপক্ষ বিএনপির সমর্থিত ইনা মেম্বার গ্রুপের লোকজন তাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এর জেরে সোমবার সকাল ১০টার দিকে দুই গ্রুপের সমর্থিত লোকজন রঘুনাথপুর বাজারে আবারও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে দুই গ্রুপের অন্তত ১০ জন আহত হয়। এদের নড়াইল ও খুলনা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গ্রামবাসীর সূত্রে জানা যায়, কালিয়া উপজেলার পুরুলিয়া ইউপির রঘুনাথপুর গ্রাম ও বাজারের দলীয় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে তাদের দুই গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের অন্যতম নেতা বাবু মোল্যা ওই গ্রামের আওয়ামী লীগ সমর্থিত গ্রুপের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। অপরদিকে ওই ইউপির ৮ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি ইনা মেম্বার বিএনপির গ্রুপের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। আওয়ামী লীগের আহতদের অভিযোগ, সিঙ্গাশোলপুর বাজারে সকালে আওয়ামী লীগ নেতা মো.বাবু মোল্যাকে একা পেয়ে বিএনপির এনাসহ তার সমর্থকরা কুপিয়ে এবং পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। এর জেরে ওইদিন (সোমবার) সকাল ১০টায় আবারও দুই গ্রুপের সমর্থিত লোকজনের মধ্যে রঘুনাথপুর বাজারে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ বেঁধে যায়। দুটি উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকায় পৃথক দুটি ঘটনায় আওয়ামী লীগ গ্রুপের দলপতি উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের বাবু মোল্যা (৩২), কিরামত মোল্যা (৫০), করিম মোল্যা (৩০), তছলিম (৩০) ও ইউছুপ মোল্যা (৬০) আহত হন। বিএনপির গ্রুপের পাবেল মোল্যা (২৫), মির্জা শেখ (৪৫) ও আরমানসহ (২৫) কমপক্ষে ১০ জন আহত হন। স্থানীয়, নড়াইল ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

কালিয়া থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমার থানাধীন ঘটনাস্থল পুলিশ পরিদর্শন করেছে। কোনো পক্ষই অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

অপরদিকে নড়াইল সদর থানার ওসি মো. ইলিয়াছ হোসেন বলেন, ‘সদর উপজেলার শিঙ্গাশোলপুরের সকালের ঘটনা শুনেছি। অভিযোগ পেলে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

শেয়ার করুন

এই বিভাগের অন্যান্য খবর
© All rights reserved © Sandhani TV
Theme Design by Hasan Chowdhury