করোনা ভাইরাস (কভিড-১৯) মোকাবিলায় এমনিতেই হাঁপিয়ে উঠেছে বিশ্ব। নিয়ন্ত্রণের শত চেষ্টা সত্ত্বেও তা দ্রুত গতিতে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ছে। প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। দেশে দেশে ভাইরাসটি মোকাবিলায় প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এক সতর্কতায় জানিয়েছে, শিগগিরই এটি বৈশ্বিক মহামারীর আকার ধারণ করতে পারে। এর মাঝে এর সংক্রমণ নিয়ে বিরল এক ঘটনার তথ্য প্রকাশ করেছে জাপান কর্তৃপক্ষ। দেশটির ওসাকা শহরে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা এক নারী ফের এতে আক্রান্ত হয়েছেন। কভিড-১৯ এর ক্ষেত্রে এমন ঘটনা এটাই প্রথম।

এ খবর দিয়েছে দ্য গার্ডিয়ান।

খবরে বলা হয়, ওই নারীর বয়স ৪০ এর কোঠায়। বুধবার শুষ্ক গলা ও বুক ব্যথা নিয়ে চিকিৎসকের কাছ গেলে তার মধ্যে কভিড-১৯ ধরা পড়ে। তিনি এর আগে ২৯ জানুয়ারি ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছিলেন। তবে ১লা ফেব্রুয়ারিতে এক পরীক্ষায় তার দেহে ভাইরাসের অস্থিত্ব না পাওয়ায় তাকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া হয়। এরপর ৬ ফেব্রুয়ারি ফের একবার পরীক্ষাতেও তিনি সুস্থ প্রমাণিত হন। জাপানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এই বিরল ঘটনার কথা নিশ্চিত করেছে।
তবে জাপানে প্রথম হলেও চীনে এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছে। এ বিষয়ে নিউ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটির স্কুল অব মেডিসিনের অধ্যাপক ফিলিপ তিয়েরনো বলেন, প্রথমবার আক্রান্ত হওয়ার পর ভাইরাসটি সুপ্ত অবস্থায় থাকতে পারে বা খুবই অল্প উপসর্গ দেখা যেতে পারে। কিন্তু পরবর্তীতে ফুসফুসে পৌঁছালে এর তীব্রতা অনুভূত হতে পারে। তিনি আরো বলেন, ভাইরাসটি নিয়ে এখনো অনেককিছুই অজানা রয়েছে।