ঢাকা ১১:৩৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
আশুলিয়া থানা যুবলীগের ভবিষ্যৎ কান্ডারী দেওয়ান রাজু আহমেদ সাতক্ষীরা কিন্ডারগার্টেনের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত” সাভার উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে ৬৫ তম ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে চান হাজী মোঃ মোশাররফ খান একজন পরিশ্রমী জনবান্ধব ইউপি সচিব শরীফুজ্জামান বিপুল ভোটে ঢাকা ১৯ এর সাংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেন মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম সাভারের আশুলিয়ায় নির্বাচন বন্ধে বিএনপি’র লিফলেট বিতরণ সাভারে নির্বাচনের হালচাল সাভারে ইউসুফ আলী চুন্নুর নেতৃত্বে ঈগল মার্কার পক্ষে নির্বাচনী গনসংযোগ জনসমুদ্রে পরিনত সাভারে ঈগল মার্কার সমর্থনে নির্বাচনী প্রচারণায় ইউসুফ আলী চুন্নু

প্রোটিয়া নারী দলের বিপক্ষে অবিস্মরণীয় জয় বাংলাদেশের

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৫৭:০৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২৩ ৩১ বার পড়া হয়েছে
sandhanitv অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

খেলাধুলা:
প্রোটিয়া নারী দলের বিপক্ষে অবিস্মরণীয় জয় বাংলাদেশের
জয়ের জন্য ১৫০ রানের লক্ষ্যে বাট করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতেই ৬৭ রান তুলে ফেলেছিলো স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকান মেয়েরা। এতটুকু দেখে যে কেউ ধারণা করে নিতে বাধ্য যে, প্রোটিয়া নারীরাই হয়তো এই ম্যাচে জিততে যাচ্ছে।
কিন্তু বেনোনির উইলোমুর পার্কে পরের অংশটা লিখা ছিল বাংলাদেশের জন্যই। বিশেষভাবে বললে, বাংলাদেশের লেগ স্পিনার স্বর্ণা আক্তারের জন্য। এই লেগির মায়াবী ঘূর্ণিপাকে পড়ে খেই হারিয়েছে স্বাগতিকরা। শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেটে ১৩৬ রানেই আটকে থাকতে হলো তাদের।

তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয় পেলো ১৩ রানের ব্যবধানে। ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করে ৪ ওভারে ২৮ রান দিয়ে একাই ৫ উইকেট নিলেন স্বর্ণা আক্তার।

দক্ষিণ আফ্রিকা নারী দলের বিপক্ষে তাদের মাটিতে যে কোনো সংস্করণে এটাই বাংলাদেশের প্রথম জয়। তবে, টি-টোয়েন্টিতে ১১ বছর আগে একবার প্রোটিয়াদের হারিয়েছিলো বাংলাদেশ। সেবার সেই জয়ের স্বাদ নিয়েছিলো মিরপুরে।
প্রোটিয়াদের বিপক্ষে প্রথম দেখাতেই জয় পেয়েছিলো সেই ২০১২ সালে। এরপর গত ১১ বছরে ১০ বার মুখোমুখি হয়ে একবারও জেতেনি বাংলাদেশের নারী ক্রিকেটাররা। এবার ১২তম ম্যাচে এসে জয়ের দেখা পেলেন।

এবার জিতলো দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতেই। প্রথম ব্যাট হাতে মুর্শিদা খাতুন এরপর বল হাতে স্বর্ণা আক্তার বিধ্বংসী বোলিং করে অসাধারণ জয়টি উপহার দিলেন। চলতি বছরেই অভিষেক ঘটেছিলো স্বর্ণা আক্তারের।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে প্রথমে জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছিলেন মুর্শিদা এবং অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতি। মুর্শিদা দায়িত্বশীল ব্যাটিং করে সংগ্রহ করেন ৬২ রান। ঝোড়ো ব্যাটিং করে অধিনায়ক জ্যোতি সংগ্রহ করেন ২১ বলে ৩৪ রান। এ দু’জনের ব্যাটে ভর করে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২ উইকেট হারিয়ে ১৪৯।

১৫০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দুই প্রোটিয়া ওপেনার আনিকা বোস এবং টাজমিন ব্রিটসের উদ্বোধনী জুটিতে দক্ষিণ আফ্রিকা তুলে ফেলে ৬৯ রান। অধিনায়ক টাজমিস ব্রিটস ২৬ বলে ৩০ রান করে আউট হন রাবেয়া খাতুনের বলে। এরপর অ্যানেরি ডার্কসেন ৫ বলে ১ রান করে আউট হয়ে যান ফাহিমা খাতুনের বলে বোল্ড হয়ে।

১৮তম ওভারের দ্বিতীয় বলে ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা আনিকা বোসকে ৬৭ রানের মাথায় ফিরিয়ে দেন স্বর্ণা আক্তার। আনিকা বোস আউট হওয়ার পরই বাংলাদেশের জয় অনেকটা নিশ্চিত হয়ে যায়। সান লুইস করেন ১৮ রান এবং ডেলমি টাকার ১৫ রানে অপরাজিত থাকেন।

স্বর্ণা আক্তারের ৫ উইকেট ছাড়াও ১টি করে উইকেট নেন নাহিদা আক্তার, ফাহিমা খাতুন এবং রাবেয়া খান।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

প্রোটিয়া নারী দলের বিপক্ষে অবিস্মরণীয় জয় বাংলাদেশের

আপডেট সময় : ১১:৫৭:০৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২৩

খেলাধুলা:
প্রোটিয়া নারী দলের বিপক্ষে অবিস্মরণীয় জয় বাংলাদেশের
জয়ের জন্য ১৫০ রানের লক্ষ্যে বাট করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতেই ৬৭ রান তুলে ফেলেছিলো স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকান মেয়েরা। এতটুকু দেখে যে কেউ ধারণা করে নিতে বাধ্য যে, প্রোটিয়া নারীরাই হয়তো এই ম্যাচে জিততে যাচ্ছে।
কিন্তু বেনোনির উইলোমুর পার্কে পরের অংশটা লিখা ছিল বাংলাদেশের জন্যই। বিশেষভাবে বললে, বাংলাদেশের লেগ স্পিনার স্বর্ণা আক্তারের জন্য। এই লেগির মায়াবী ঘূর্ণিপাকে পড়ে খেই হারিয়েছে স্বাগতিকরা। শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেটে ১৩৬ রানেই আটকে থাকতে হলো তাদের।

তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয় পেলো ১৩ রানের ব্যবধানে। ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করে ৪ ওভারে ২৮ রান দিয়ে একাই ৫ উইকেট নিলেন স্বর্ণা আক্তার।

দক্ষিণ আফ্রিকা নারী দলের বিপক্ষে তাদের মাটিতে যে কোনো সংস্করণে এটাই বাংলাদেশের প্রথম জয়। তবে, টি-টোয়েন্টিতে ১১ বছর আগে একবার প্রোটিয়াদের হারিয়েছিলো বাংলাদেশ। সেবার সেই জয়ের স্বাদ নিয়েছিলো মিরপুরে।
প্রোটিয়াদের বিপক্ষে প্রথম দেখাতেই জয় পেয়েছিলো সেই ২০১২ সালে। এরপর গত ১১ বছরে ১০ বার মুখোমুখি হয়ে একবারও জেতেনি বাংলাদেশের নারী ক্রিকেটাররা। এবার ১২তম ম্যাচে এসে জয়ের দেখা পেলেন।

এবার জিতলো দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতেই। প্রথম ব্যাট হাতে মুর্শিদা খাতুন এরপর বল হাতে স্বর্ণা আক্তার বিধ্বংসী বোলিং করে অসাধারণ জয়টি উপহার দিলেন। চলতি বছরেই অভিষেক ঘটেছিলো স্বর্ণা আক্তারের।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে প্রথমে জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছিলেন মুর্শিদা এবং অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতি। মুর্শিদা দায়িত্বশীল ব্যাটিং করে সংগ্রহ করেন ৬২ রান। ঝোড়ো ব্যাটিং করে অধিনায়ক জ্যোতি সংগ্রহ করেন ২১ বলে ৩৪ রান। এ দু’জনের ব্যাটে ভর করে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২ উইকেট হারিয়ে ১৪৯।

১৫০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দুই প্রোটিয়া ওপেনার আনিকা বোস এবং টাজমিন ব্রিটসের উদ্বোধনী জুটিতে দক্ষিণ আফ্রিকা তুলে ফেলে ৬৯ রান। অধিনায়ক টাজমিস ব্রিটস ২৬ বলে ৩০ রান করে আউট হন রাবেয়া খাতুনের বলে। এরপর অ্যানেরি ডার্কসেন ৫ বলে ১ রান করে আউট হয়ে যান ফাহিমা খাতুনের বলে বোল্ড হয়ে।

১৮তম ওভারের দ্বিতীয় বলে ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা আনিকা বোসকে ৬৭ রানের মাথায় ফিরিয়ে দেন স্বর্ণা আক্তার। আনিকা বোস আউট হওয়ার পরই বাংলাদেশের জয় অনেকটা নিশ্চিত হয়ে যায়। সান লুইস করেন ১৮ রান এবং ডেলমি টাকার ১৫ রানে অপরাজিত থাকেন।

স্বর্ণা আক্তারের ৫ উইকেট ছাড়াও ১টি করে উইকেট নেন নাহিদা আক্তার, ফাহিমা খাতুন এবং রাবেয়া খান।