ঢাকা ০৩:৫৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
ঢাকা -১৯-আসনের সংসদসদস্যের নির্দেশনায় এইচ বিবি করন রাস্তা সংস্কার কাজ নির্মাণ শুরু করলেন আশুলিয়া থানা যুবলীগের ভবিষ্যৎ কান্ডারী দেওয়ান রাজু আহমেদ সাতক্ষীরা কিন্ডারগার্টেনের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত” সাভার উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে ৬৫ তম ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে চান হাজী মোঃ মোশাররফ খান একজন পরিশ্রমী জনবান্ধব ইউপি সচিব শরীফুজ্জামান বিপুল ভোটে ঢাকা ১৯ এর সাংসদ সদস্য নির্বাচিত হলেন মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম সাভারের আশুলিয়ায় নির্বাচন বন্ধে বিএনপি’র লিফলেট বিতরণ সাভারে নির্বাচনের হালচাল সাভারে ইউসুফ আলী চুন্নুর নেতৃত্বে ঈগল মার্কার পক্ষে নির্বাচনী গনসংযোগ জনসমুদ্রে পরিনত

আশাশুনির অনার্স পড়ুয়া রাজিব গাইন বিরল রোগে আক্রান্ত

আশাশুনি (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা
  • আপডেট সময় : ০৭:৩৫:২০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২৩ ৪৪ বার পড়া হয়েছে
sandhanitv অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

আশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউনিয়নের অনার্স পড়ুয়া রাজিব গাইন (২০) এর বাম হাত স্বাভাবিকের তুলনায় কয়েক গুণ ফোলা ও গোটা গোটা দেখলে মনে হবে গাছের বাকলের (ছালের) মত ছেয়ে গেছে পুরো হাতটি। সেটা ফেটে রক্তও বের হচ্ছে। ব্যাথায় যন্ত্রনায় হাসপাতালে বেডে শুয়ে বাঁচার আকুতি জানিয়েছেন অনার্স পড়ুয়া এই রাজিব গাইন। বিরল রোগে আক্রান্ত রাজিব বড়দল ইউনিয়নের মাদিয়া গ্রামের কৃষক কার্তিক চন্দ্র গাইনেরর ছেলে। দুই ভাই ও এক বেনের মধ্যে সে সবার বড়। জন্মের পর থেকেই এই বিরল রোগে আক্রান্ত হয়ে সে মানবেতর জীবনযাপন করছে। বর্তমানে সে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। রাজিবের বাবা কার্ত্তিক চন্দ্র গাইন জানান, জন্মের পর থেকে রাজিবের বাম হাতসহ বাম পাশে মার্বেলের মতো গোটা দেখা দেয়। এরপর থেকে তা বাড়তে থাকে। সাথে সাথে চলে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসাও। ধীরে ধীরে আক্রান্ত বাম হাত তার দেহের সব অঙ্গের চেয়েও ভারি হয়ে উঠেছে। বিকট যন্ত্রণায় মাঝে মধ্যে অস্থির হয়ে পড়ছে রাজিব। তিনি আরও জানান, রাজিবের চিকিৎসার জন্য দেশের অনেক হাসপাতালে গিয়েছি। ডাঃ কবিরাজ দেখাতে দেখাতে এখন সর্বস্বান্ত হয়ে পড়েছি। সঠিক চিকিৎসা কোথাও পাইনি। বর্তমানে টাকার অভাবে তার লেখাপড়াও বন্ধ করে দিতে হয়েছে। যন্ত্রণায় কাতর রাজিব গাইন জানান, মাঝে মধ্যে চুলকায় এবং প্রচুর যন্ত্রণা করে তার। তখন সে দিশেহারা হয়ে পড়ে। সে আক্ষেপ করে আরও বলেন, আশাশুনি সরকারী কলেজে অনার্স প্রথম বর্ষে ভর্তি হওয়ার পর অর্থের অভাবে তার পড়ালেখা বর্তমানে বন্ধ আছে। তার কৃষক বাবা তাকে চিকিৎসা করাবেন নাকি তার লেখাপড়ার খরচ যোগাবেন? অসহায় রাজিব গাইনের পরিবারের পক্ষে ব্যয় বহুল চিকিৎসা খরচ যোগাড় করা অসম্ভব হয়ে পড়েছে। সে কারণে তার চিকিৎসার জন্য সরকারী কোন দপ্তর, কোন সংস্থা বা কোন সহৃদয়বান ব্যক্তি তার পাশে দাঁড়ানোর জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে আকুল আবেদন জানানো হয়েছে। রাজিব ও তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করা এবং সাহায্য পাঠানোর জন্য ০১৭৫০-৮০৬৬৫১ নম্বরে (বিকাশ ও নগদ) অনুরোধ জানানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

আশাশুনির অনার্স পড়ুয়া রাজিব গাইন বিরল রোগে আক্রান্ত

আপডেট সময় : ০৭:৩৫:২০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২৩

 

আশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউনিয়নের অনার্স পড়ুয়া রাজিব গাইন (২০) এর বাম হাত স্বাভাবিকের তুলনায় কয়েক গুণ ফোলা ও গোটা গোটা দেখলে মনে হবে গাছের বাকলের (ছালের) মত ছেয়ে গেছে পুরো হাতটি। সেটা ফেটে রক্তও বের হচ্ছে। ব্যাথায় যন্ত্রনায় হাসপাতালে বেডে শুয়ে বাঁচার আকুতি জানিয়েছেন অনার্স পড়ুয়া এই রাজিব গাইন। বিরল রোগে আক্রান্ত রাজিব বড়দল ইউনিয়নের মাদিয়া গ্রামের কৃষক কার্তিক চন্দ্র গাইনেরর ছেলে। দুই ভাই ও এক বেনের মধ্যে সে সবার বড়। জন্মের পর থেকেই এই বিরল রোগে আক্রান্ত হয়ে সে মানবেতর জীবনযাপন করছে। বর্তমানে সে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। রাজিবের বাবা কার্ত্তিক চন্দ্র গাইন জানান, জন্মের পর থেকে রাজিবের বাম হাতসহ বাম পাশে মার্বেলের মতো গোটা দেখা দেয়। এরপর থেকে তা বাড়তে থাকে। সাথে সাথে চলে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসাও। ধীরে ধীরে আক্রান্ত বাম হাত তার দেহের সব অঙ্গের চেয়েও ভারি হয়ে উঠেছে। বিকট যন্ত্রণায় মাঝে মধ্যে অস্থির হয়ে পড়ছে রাজিব। তিনি আরও জানান, রাজিবের চিকিৎসার জন্য দেশের অনেক হাসপাতালে গিয়েছি। ডাঃ কবিরাজ দেখাতে দেখাতে এখন সর্বস্বান্ত হয়ে পড়েছি। সঠিক চিকিৎসা কোথাও পাইনি। বর্তমানে টাকার অভাবে তার লেখাপড়াও বন্ধ করে দিতে হয়েছে। যন্ত্রণায় কাতর রাজিব গাইন জানান, মাঝে মধ্যে চুলকায় এবং প্রচুর যন্ত্রণা করে তার। তখন সে দিশেহারা হয়ে পড়ে। সে আক্ষেপ করে আরও বলেন, আশাশুনি সরকারী কলেজে অনার্স প্রথম বর্ষে ভর্তি হওয়ার পর অর্থের অভাবে তার পড়ালেখা বর্তমানে বন্ধ আছে। তার কৃষক বাবা তাকে চিকিৎসা করাবেন নাকি তার লেখাপড়ার খরচ যোগাবেন? অসহায় রাজিব গাইনের পরিবারের পক্ষে ব্যয় বহুল চিকিৎসা খরচ যোগাড় করা অসম্ভব হয়ে পড়েছে। সে কারণে তার চিকিৎসার জন্য সরকারী কোন দপ্তর, কোন সংস্থা বা কোন সহৃদয়বান ব্যক্তি তার পাশে দাঁড়ানোর জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে আকুল আবেদন জানানো হয়েছে। রাজিব ও তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করা এবং সাহায্য পাঠানোর জন্য ০১৭৫০-৮০৬৬৫১ নম্বরে (বিকাশ ও নগদ) অনুরোধ জানানো হয়েছে।